Pages Navigation Menu

Whatever is our mother tongue, second language must be Arabic.

اقسام الاسم বা اسم এর প্রকারভেদ পর্ব-১

اقسام الاسم বা اسم এর প্রকারভেদ পর্ব-১

اقسام الاسم বা اسم এর প্রকারভেদ
আসসালামু আলাইকুম। প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা গত পোস্টে আমরা اسمএর পরিচয় ও তার আলামত বা চিনার উপায় নিয়ে আলোচনা করেছিলাম। আজকে আলোচনা করবো তার প্রকারভেদ নিয়ে।

নিচের উদাহরণগুলোর প্রতি লক্ষ্য করো-
(ক) عبد الله كاتب جيد আবদুল্লাহ একজন ভালো লেখক। قام ولد على الكرسي একটি ছেলে চেয়ারে দাঁড়িয়েছে।
(খ) سلمان طالب مؤدب সালমান বিনয়ী ছাত্র। خديجة طالبة ذكية খাদিজা মেধাবী ছাত্রী।
(গ) ذهب الطالب الى المدرسة ছাত্রটি মাদরাসায় গিয়েছে। ذهب الطالبان الى المدرسة ছাত্র দুটি মাদরাসায় গিয়েছে। ذهب الطلاب الى المدرسة ছাত্ররা মাদরাসায় গিয়েছে।
(ঘ) الكعبة بيت الله কাবা আল্লাহর ঘর। النصر معرفة المؤمن সহায়তা মুমিনের পরিচয়। طالب العلم محبوب عند الله জ্ঞান অন্বেষণকারী আল্লাহর নিকট প্রিয়।
(ঙ) حضر الأستادُ في المدرسة শিক্ষক মাদরাসায় উপস্থিত হয়েছেন। رأيت الأستادَ في المدرسة আমি শিক্ষককে মাদরাসায় দেখেছি। أخذت الكتاب من الاستادِ আমি শিক্ষক থেকে বইটি নিয়েছি। هذا الولد نجح في الامتحان এ ছেলেটি পরীক্ষায় পাস করেছে। رأيت هذا الولد في السوق এ ছেলেটিকে আমি বাজারে দেখেছি।

উপরিউক্ত উদাহরণগুলো গভীরভাবে লক্ষ্য করলে দেখা যায় যে, এতে নিম্নরেখা বিশিষ্ট প্রত্যেকটি শব্দই اسم এর অন্তর্ভূক্ত। কেননা এর কোনোটিই তার আলামত তথা চিহ্ন থেকে খালি নয়। তবে শব্দগুলো বিভিন্ন ধরনের। যেমন-
“ক” অংশের প্রথম বাক্যে عبد الله শব্দ দ্বারা এমন একজন ব্যক্তিকে বুঝায় যিনি নির্দিষ্ট। কিন্তু দ্বিতীয় বাক্যে ولد শব্দ দ্বারা একটি ছেলেকে বোঝানো হয়েছে, যে নির্দিষ্ট নয়। সুতরাং নির্দিষ্টভাবে বোঝানোর কারনে عبد الله শব্দটি معرفة এবং অনির্দিষ্টভাবে বোঝানোর কারনে ولد শব্দটি نكرة হয়েছে।

“খ” অংশের প্রথম বাক্যে سلمان শব্দটি দ্বারা একজন পুরুষকে বোঝানো হয়েছে এবং দ্বিতীয় বাক্যে خديجة শব্দ দ্বারা একজন স্ত্রী লোককে বোঝানো হয়েছে। সুতরাং পুরুষলিঙ্গ বোঝানোর কারনে سلمان শব্দটি مذكر এবং স্ত্রীলিঙ্গ বোঝানোর কারনে خذيجة শব্দটি مؤنث হয়েছে।

“গ” অংশের প্রথম বাক্যে الطالب শব্দ দ্বারা একজন ছাত্র, দ্বিতীয় বাক্যে الطالبان শব্দ দ্বারা দু’জন ছাত্র এবং তৃতীয় বাক্যে الطلاب শব্দ দ্বারা অনেক ছাত্র বোঝানো হয়েছে। সুতরাং একজন ছাত্র বোঝানোর কারনে الطالب শব্দটি واحد দুজন ছাত্র বোঝানোর কারনে الطالبان শব্দটি تثنيه এবং অনেক ছাত্র বোঝানোর করেনে الطلاب শব্দটি جمع হয়েছে।

“ঘ” অংশের প্রথম বাক্যে بيت শব্দটি কোনো শব্দ থেকে আগত নয় এবং তার থেকে কোনো শব্দ গঠিতও হয় না। দ্বিতীয় বাক্যে النصر শব্দটি হলো ক্রিয়ামূল। আর তৃতীয় বাক্যে الطالب শব্দটি মাসদার থেকে গঠিত ইসম। সুতরাং আগত ও নির্গত উভয় দিক থেকে মুক্ত হওয়ায় بيت শব্দটি جامد আর ত্রিয়ামূল হওয়ায় النصر শব্দটি مصدر এবং মাসদার থেকে নিষ্পন্ন হওয়ায় طالب শব্দটি مشتق হয়েছে।

“ঙ” অংশের الاستاد শব্দটি اعراب এর দিক থেকে প্রথম বাক্যে রফাবিশিষ্ট, দ্বিতীয় বাক্যে নসববিশিষ্ট এবং তৃতীয় বাক্যে যেরবিশিষ্ট হয়েছে। অন্যদিকে চতুর্থ ও পঞ্চম বাক্যে هذا শব্দের اعراب সর্বদাই একই রকম হয়েছে। সুতরাং اعراب এর পরিবর্তন হওয়ায় الاستاد শব্দটিকে معرب এবং সর্বদা একই اعراب বহাল থাকায় هذا শব্দটি مبني হয়েছে।

বিভিন্ন দৃষ্টিকোণে اسم কে পাঁচভাগে ভাগ করা যায়। যথা-
1. اقسام الاسم باعتبار التعريف والتنكير তথা নির্দিষ্ট ও অনির্দিষ্টের ভিত্তিতে اسم প্রকারভেদ।
2. اقسام الاسم باعتبارالجنس তথা লিঙ্গের ভিত্তিতে اسم প্রকারভেদ।
3. اقسام الاسم باعتبارالعدد তথা বচনভেদে اسم প্রকারভেদ।
4. اقسام الاسم باعتبارالتكوين তথা গঠনগত দিক থেকে اسم প্রকারভেদ।
5. اقسام الاسم باعتبارالاعراب ইরাব এর দিক থেকে اسم প্রকারভেদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *